বুধবার, ২২ মে ২০২৪, ০৮:৫০ অপরাহ্ন
নোটিশ::
দৈনিক স্বদেশ সংবাদ লাইভ খবর পড়ুন

র‌্যাবের অভিযানে কেন্দুয়ায় গৃহবধু হত্যা মামলার মূলহোতাসহ গ্রেফতার ২

রিপোর্টার / ১১৮ ভিউ
আপডেট সময় : রবিবার, ১২ ফেব্রুয়ারী, ২০২৩, ১:৫৩ অপরাহ্ন

স্টাফ রিপোর্টার : নেত্রকোনা জেলার কেন্দুয়া থানাধীন যৌতুকের জন্য গৃহবধুকে হত্যা মামলার মূলহোতাসহ সহযোগীকে গ্রেফতার করেছে র‌্যাব-১৪, ময়মনসিংহ। চাঞ্চল্যকর এই ঘটনার প্রেক্ষিতে র‌্যাব-১৪ এর একটি আভিযানিক দল গোপন সংবাদের ভিত্তিতে ১২ ফেব্রুয়ারী ভোরে মুন্সীগঞ্জ জেলার সিরাজদিখান উপজেলার তালতলা লঞ্চঘাট এলাকা থেকে মোঃ সাদ্দাম হোসেন(২৩), পিতা-মৃত আব্দুল কাদের, সাং: সরাপাড়া, থানা-কেন্দুয়া, জেলা- নেত্রকোনা এবং মো: শাহ আলম(৩২), পিতা-মৃত আব্দুল কাদের, সাং-সরাপাড়া, থানা-কেন্দুয়া, জেলা-নেত্রকোনা গ্রেফতার করে। গ্রেফতারকৃত আসামীরা প্রাথমিক জিজ্ঞাসাবাদে বর্ণিত ঘটনার সাথে তার সম্পৃক্ততার কথা স্বীকার করে। এছাড়াও উপরোক্ত ঘটনার মতো যাতে আর কোন ঘটনার না ঘটে সে প্রেক্ষিতে র‌্যাবের টহল তৎপরতা ও গোয়েন্দা নজরদারী অব্যাহত থাকবে। গ্রেফতারকৃত আসামীদের নেত্রকোনা জেলার কেন্দুয়া থানায় হস্তান্তর করা হয়েছে।
উল্লেখ্য যে আসামিগণ সম্পর্কে যথাক্রমে ভিকটিমের স্বামী, ভাসুর, শাশুড়ি, ননাস ও ননাসের জামাই। তারা সঙ্গবদ্ধ যৌতুক লোভী ও নারী নির্যাতনকারী। ভিকটিমকে ১নং আসামী গত দুই বছর পূর্বে বিবাহ করে। বিবাহ দেওয়ার সময জামাইকে নগদ ১ লক্ষ টাকা ও ১লক্ষ টাকার ফার্নিচার দেওয়া হইয়েছিল। বিভিন্ন সময়ে উক্ত আসামীগণ যৌতুক দাবি করলে পর্যায়ক্রমে ভিকটিমের পিতা-মাতা ৮০,০০০/= টাকা প্রদান করে। এমনিভাবে আসামি সাদ্দাম হোসেন ও শাশুড়ি সাজেদা আক্তার ভিকটিমকে চাপ দিয়ে ২ লাখ টাকা যৌতুক আনার কথা বলে। ভিকটিমের পিতা-মাতা এতগুলো টাকা প্রদান করতে অক্ষম বিদায় তাদের নিজ বাড়িতে ভিকটিমকে ১.৫ মাসের মতো রেখে দেয়। গত এক সপ্তাহ পূর্বে বিবাদী সাদ্দাম হোসেন ভিকটিমকে তার পিতা মাতার বাড়ি থেকে ভবিষ্যতে আর কোনদিন যৌতুকের দাবিতে মারধর নির্যাতন করিবে না মর্মে অঙ্গীকার করে আসামীদের নিজ বাড়িতে নিয়ে আসে। গত ০২/০২/২০২৩ইং তারিখ রোজ মঙ্গলবার দিবাগত রাততে আসামি সাদ্দাম হোসেন, নূরে আলম, শাহ আলম, সাজেদা আক্তার, বসতঘরের দরজা-জানলা বন্ধ করে পরিকল্পিতভাবে যৌতুক আদায়ের উদ্দেশ্যে তাদের দাবীকৃত ২ লক্ষ টাকা এনে দিতে চাপ দিলে ভিকটিম টাকা এনে দিতে অস্বীকার করলে সকল আসামিগণ আসামিগন পরস্পর যোগসাজশে ভিকটিমকে আসামী সাদ্দাম হোসেন বিদ্যুতের তার গলায় পেচিয়ে বালিশ চাপা দিয়ে শ্বাসরোধ করে হত্যা করে। ভিকটিমের মা সংবাদ পেয়ে ভোরবেলা লোকজন নিয়ে আসামিদের বাড়িতে আসার পূর্বেই ভিকটিমকে হত্যা করে লাশ ফেলে রেখে আসামিগণ পালিয়ে যায়। এর পরিপ্রেক্ষিতে হত্যাকারীদের বিরুদ্ধে ভিটিমের মা বাদী হয়ে কেন্দুয়ঢা থানায নারী ও শিশু নির্যাতন দমন আইনের ১১(ক) ধারায় একটি মামলা দায়ের করে।


আপনার মতামত লিখুন :

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

এ জাতীয় আরো সংবাদ
Theme Created By ThemesDealer.Com